টেস্টে বিলুপ্ত হবে টসপ্রথা?

ক্রিড়া ডেস্ক : ইতিহাসের প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে নেমেছিল ইংল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়া, ১৮৭৭ সালে। সেই ম্যাচ থেকেই ক্রিকেটে টসপ্রথার প্রচলন শুরু হয়। তবে এবার হয়তো সাদা পোশাকের ক্রিকেট থেকে টসপ্রথার বিলুপ্তি ঘটতে পারে। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল (আইসিসি) হাঁটছে সে পথেই। টসের সুবিধা-অসুবিধার কথা বেশ গুরুত্বের সঙ্গেই ভাবছে তারা। সেই ভাবনা থেকেই টসপ্রথার বিলুপ্তি ঘটার জোর সম্ভাবনা রয়েছে।

টসপ্রথার নিয়ম অনুযায়ী, স্বাগতিক দলের অধিনায়ক প্রথমে টস করবে। টসে যে দল জিতবে, তারা নিজেদের পছন্দে বোলিং অথবা ব্যাটিং বেছে নিতে পারবে। এ পর্যন্ত সবই ঠিক ছিল। তবে বেশ কয়েক বছর ধরে টসে জেতার ওপর নির্ভর করে ম্যাচেও জয়-পরাজয় নির্ধারণ হয়ে যাচ্ছে। স্বাগতিক দল নিজেদের সুবিধার্থে ইচ্ছামতো ব্যাটিং কিংবা বোলিং পিচ বানিয়ে প্রতিপক্ষ দলকে ধরাশায়ী করতে পারে। এ সমস্যা সমাধানে ২০১৯ সাল থেকে শুরু হওয়া নতুন ফরম্যাটের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপেই টসপ্রথা বিলুপ্তির আবেদন তোলা হচ্ছে বেশ জোরেশোরে।

এ মাসের শেষের দিকে মুম্বাইয়ে আইসিসির পরবর্তী সভায় এটি আলোচনার অন্যতম বিষয় থাকবে। অবশ্য অনেক প্রতিনিধি টসপ্রথার বিলুপ্তির পক্ষেই অবস্থান নিয়েছেন।

আইসিসি কমিটিতে আছেন—অনিল কুম্বলে, অ্যান্ড্রু স্ট্রাউস, মাহেলা জয়াবর্ধনে, রাহুল দ্রাবিড়, টিম মে, নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট, আম্পায়ার রিচার্ড ক্যাটেলবোরো, আইসিসির ম্যাচ রেফারি প্রধান রঞ্জন মাদুগালে, শন পোলক ও ক্লার কনর। চলতি মাসের ২৮-২৯ তারিখ আইসিসির সভায় টেস্ট ফরম্যাটে টসের ভবিষ্যৎ কী হবে, এ ব্যাপারে তাঁরা সিদ্ধান্ত নেবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *