পলাতক মাদক বিক্রেতাদের ফিরিয়ে আনতে মিয়ানমারকে তালিকা

বৈচিত্র ডেস্ক :  মিয়ানমারে পালিয়ে যাওয়া মাদক বিক্রেতাদের ফিরিয়ে আনতে দেশটিকে একটি তালিকা দিয়েছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ(বিজিবি)। পলাতকদের ফিরিয়ে আনার ব্যবস্থা করতে দুই দেশের মধ্যে আলোচনাও হচ্ছে বলে জানায় বিজিবি।

বৃহস্পতিবার বিজিবি ও বিজিপির যৌথ প্রেস ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বিজিবির ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মজিবুর রহমান এ তথ্য জানিয়েছেন।

গত ৯ থেকে ১২ জুলাই ঢাকায় সীমান্ত সম্মেলনে বিজিপির ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাইয়ো থানের নেতৃত্বে ১১ সদস্যের প্রতিনিধিদল উপস্থিত ছিলেন। এতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের অতিরিক্ত মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আনিসুর রহমানের নেতৃত্বে ১৩ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল অংশ নেয়।

যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়, সীমান্ত সম্মেলনে যেসব বিষয় উত্থাপন করা হয়েছে, তার মধ্যে ইয়াবার ব্যাপকতা নিয়ে দুই পক্ষ উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। তারা মাদক চোরাচালান প্রতিরোধে পরস্পরকে সহযোগিতার বিষয়ে সম্মত হয়েছে।

বৈঠকে মিয়ানমারের তরফে বলা হয়েছে, তাদের দেশেও একই অবস্থা। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ সীমান্তে ইয়াবাপাচার প্রতিরোধে তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে।

বিজিবির ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মজিবুর রহমান বলেন, আমরা মাদকের বিষয়ে জিরো টলারেন্স অবস্থানে রয়েছি। মিয়ানমারও এই মাদকের কারণে সাফার করছে। আমাদের যুবসমাজও মাদকে আসক্ত হচ্ছে।

সম্প্রতি মিয়ানমার নাগরিকদের সীমান্ত অতিক্রমসহ সীমান্তে গুলিবর্ষণের ঘটনায় বিজিবির পক্ষ থেকে গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করা হয়।

একই সঙ্গে শান্তি রক্ষায় ও স্থিতিশীলতা রক্ষায় এ ধরনের কর্মকাণ্ডের পুনরাবৃত্তি বন্ধে মিয়ানমারের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। এ সময় বিজিপির পক্ষ থেকে জানানো হয়, এ ধরনের অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা বন্ধে ইতিমধ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

সংবাদ সম্মেলনে ভূমি মাইন নিয়ে প্রশ্ন করা হলে বলা হয়েছে, এ বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়েছে।

বিজিপি জানিয়েছে, তারা ভূমি মাইন ব্যবহার করে না। তার পরও কোথাও দেখা গেলে তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *