আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দু’ গ্রুপের সংঘর্ষে নিহত ৬

খাগড়াছড়ি সংবাদদাতা :  খাগড়াছড়ির সদর উপজেলায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) ও জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা) দু’গ্রুপের মধ্যে পৃথক সংঘর্ষে ছয়জন নিহত হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন মোট সাতজন।

নিহতরা হলেন- মধ্যে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমা, মহালছড়ি উপজেলা স্বাস্থ্য সহকারি জিতায়ন চাকমা, গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নেতা এলটন চাকমা, বরুন চাকমা, রুপন চাকমা ও পলাশ চাকমা। এদের মধ্যে জিয়াতন রাস্তা পর হওয়ার সময় গুলিবিদ্ধ হন। পরে হাসপাতালে নেওয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে আহতদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

আজ শনিবার সকাল ৯টার দিকে সদর উপজেলার স্বনির্ভর এলাকায় গোলাগুলির ঘটনা ঘটে। পরে বেলা ১১টার দিকে উপজেলার গিরিফুল এলাকায় আবারও সংঘর্ষ বাধে। সংঘর্ষে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় দুজনের।

খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালের দায়িত্বরত চিকিৎসক নয়নময় ত্রিপুরা আমাদের সময়কে জানান, এ ঘটনায় মারাত্মকভাবে আহত দুজনকে হাসপাতালে আনার কিছুক্ষণ পরেই তারা মারা যান। যারা আহত হয়েছেন, তাদের মধ্যে বেশ কয়েকজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে খাগড়াছড়ি সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহাদাত হোসেন টিটু আমাদের সময়কে জানান, আধিপত্য বিস্তার নিয়ে শনিবার সকালে ইউনাইডেট পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট ও জনসংহতি সমিতির (এম এন লারমা) দুটি গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। প্রায় আধা ঘন্টা ধরে চলা এই সংঘর্ষে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের খাগড়াছড়ি জেলা শাখার ভারপ্রাপ্ত সভাপতি তপন চাকমাসহ চারজন নিহত হন।

ওসি জানান, দুই গ্রুপের গোলাগুলিতে বাকি হতাহতদের উদ্ধারের চেষ্টা চলছে। হতাহতদের নির্দিষ্ট সংখ্যা পরে জানানো হবে।

তবে গোলাগুলির এ ঘটনায় হতাহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের নাম-পরিচয় জানাতে পারেননি পুলিশের ওই কর্মকর্তা।

এদিকে ইউপিডিএফ-এর প্রচার বিভাগের প্রধান নিরন চাকমা এ ঘটনায় জনসংহতি সমিতিকে (এম এন লারমা) দায়ী করছে। তবে এম এন লারমা নেতা সুধাংকর চাকমা এই অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, ইউপিডিএফের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণেই এ ঘটনা ঘটেছে।

ঘটনার পর খাগড়াছড়ি শহরে থমথমে পরিস্থিতি বিরাজ করছে। পানছড়ি-খাগড়াছড়ি সড়কে সকল যানবাহন চলাচল বন্ধ রয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *