বাঘিনীর প্রাণভিক্ষার খারিজ!

বৈচিত্র ডেস্ক : ভারতের মহারাষ্ট্র রাজ্যে মানুষ হত্যাকারী একটি বাঘিনীকে বাঁচাতে উচ্চ আদালতে আপিল করেন বন্যপ্রাণী সংরক্ষকরা। ওই বাঘিনীকে যেন গুলি করে হত্যা না করা হয় সেই আবেদন করেছিলেন তারা। তবে এ মর্মে করা আপিল আবেদনটি খারিজ করে দিয়েছেন সুপ্রিমকোর্ট।

আদালতের ভাষ্য, বনরক্ষীরা যদি বাঘটিকে ধরতে ব্যর্থ হয় এবং গুলি করে হত্যা করতে বাধ্য হয়, তা হলে আদালত এতে হস্তক্ষেপ করবে না।

জানা যায়, মহারাষ্ট্র রাজ্যে বনভূমির কাছে গরু-ছাগল চরানোর সময় ওই বাঘিনী আক্রমণে এ পর্যন্ত পাঁচজন মানুষ নিহত হয়েছেন। তথাপিও বনরক্ষীরা বাঘটিকে ধরার পরিকল্পনা করার পর বন্যপ্রাণী সংরক্ষণকর্মীরা আদালতে আপিল করেন যে, বাঘিনীটির প্রতি দয়া দেখানো হোক। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমে একে প্রাণভিক্ষার আবেদন বলে অভিহিত করা হয়।

সংরক্ষণ কর্মীরা বলেন, বন বিভাগ এটি প্রমাণ করতে ব্যর্থ হয়েছে যে, গ্রামবাসীদের মৃত্যুর জন্য বাঘিনীটিই দায়ী। ভারতে কিছু সংবাদমাধ্যমে বলা হয়, বাঘিনীটির হাতে অন্তত ১৩ জন নিহত হয়েছেন। তবে বিশেষজ্ঞরা বলেন, একটি মাত্র বাঘের হাতে এত লোক আক্রান্ত হওয়া খুবই অস্বাভাবিক।

ভারতে প্রাণী সংরক্ষণ নীতির ফলে বাঘের সংখ্যা এখন বাড়ছে, কিন্তু বনভূমির পরিমাণ কমে আসায় তাদের সঙ্গে মানুষের সংঘাতও বাড়ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *