যা বললেন বোল্ট

ক্রীড়া ডেস্ক : অস্ট্রেলিয়ার ডোপ বিরোধী সংস্থা আসাদা ডোপ পরীক্ষার জন্য কিংবদন্তি অ্যাথলিট ইউসেইন বোল্টকে নোটিস পাঠিয়েছিল। আর তাতেই চটেছেন বোল্ট।

অলিম্পিক্সে আট বারের স্প্রিন্ট চ্যাম্পিয়ন এই মুহূর্তে এ লিগের দল সেন্ট্রাল কোস্ট মেরিনার্সের ট্রায়ালে রয়েছেন। গত শুক্রবার যে দলের হয়ে প্রথম প্রীতি ম্যাচে খেলতে নেমে জোড়া গোলও করেন বোল্ট।

ডোপ টেস্টের নোটিশে বোল্টকে বলা হয়েছে, বিখ্যাত অ্যাথলিট ছিলেন বলেই নাকি তাঁকে পরীক্ষা দিতে হবে। এতেই ক্ষুব্ধ বোল্ট ইনস্টাগ্রামে তাঁর ডোপ টেস্টের প্রাপ্ত নোটিশ পোস্ট করে লিখেছেন, ‘‘বন্ধুরা, ট্র্যাক অ্যান্ড ফিল্ড থেকে অবসর নেওয়ার পরে ফুটবলার হওয়ার জন্য ট্রায়াল দিচ্ছি। দেখুন, কী অবস্থার মধ্যে ফেলা হচ্ছে।’’

আসাদার পক্ষ থেকে পাঠানো নোটিশে বলা হয়েছে, ফুটবল ফেডারেশন অস্ট্রেলিয়ার নিয়ম অনুযায়ী, রক্ত ও মূত্রের নমুনা পাঠাতে হবে তাঁকে। যার অর্থ, ট্রায়ালে থাকলেও বোল্টকে ক্লাবের নথিবদ্ধ ফুটবলার হিসেবেই দেখা হচ্ছে। সে কারণেই তাঁকে ডোপ টেস্ট দিতে হবে।

চলতি সপ্তাহের শেষেই বোল্টের ট্রায়াল-পর্ব শেষ হয়ে যাবে। তার পরেই ক্লাব জানাবে বোল্টের ফুটবল-ভবিষ্যৎ। যদিও এরই মাঝে বোল্টের এজেন্ট টনি র‌্যালিস জানিয়েছেন, চ্যাম্পিয়ন্স লিগ খেলার লক্ষ্য নিয়ে ইউরোপের দু’টি ক্লাব তৈরি হচ্ছে। যারা বোল্টকে সই করানোর প্রস্তাব দিয়েছে।’’ তবে সেই ক্লাবগুলোর নাম তিনি উল্লেখ করেননি।

এদিকে বোল্টের ঘনিষ্ঠমহলের বক্তব্য, ইংল্যান্ডের শেফিল্ড ইউনাইটেড, এভার্টন, হাঙ্গেরির ফেরেঙ্কভারোস ও মালটার ক্লাব বলজ়ান রয়েছে বোল্টকে পাওয়ার দৌড়ে। বোল্ট যদিও ক্ষোভের সঙ্গেই বলেন, ‘‘কীভাবে এখন ডোপ টেস্ট দেব! আমি তো এখনও পেশাদার ফুটবলারই নই।’’ সঙ্গে যোগ করেন, ‘‘যে মহিলা যোগাযোগ করেছিলেন, তাঁকে বলি, কোন ক্লাবে যখন সই করিনি তখন কেন ডোপ টেস্ট দিতে হবে? জবাবে তিনি বলেন, যেহেতু আমি একজন বিখ্যাত অ্যাথলিট ছিলাম, তাই এই পরীক্ষায় যেতে হবে।’’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *