পিরামিডের ‘নির্মাণ রহস্য’

বৈচিত্র ডেস্ক : পিরামিড হল মিশরে অবস্থিত প্রাচীন প্রস্তরনির্মিত স্থাপনাসমূহ। প্রাচীন যুগের সপ্ত আশ্চর্যের মধ্যে আজও টিকে থাকা একমাত্র বিস্ময় মিশরের এই পিরামিড।

প্রায় সাড়ে চার হাজার বছরেও পিরামিডের রহস্য পুরোপুরি উদঘাটন করা যায়নি। তবে প্রত্নতত্ত্ববিদরা এবার পিরামিড যে পাথরের ব্লক দ্বারা নির্মিত, সেগুলো কিভাবে উপরে তোলা হয়েছে তার একটি নকশা আবিষ্কার করেছেন।

কায়রোর ফ্রেঞ্চ ইনস্টিটিউট ফর ওরিয়েন্টাল আর্কিওলজি ও যুক্তরাজ্যের লিভারপুল বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকরা এ তথ্য আবিষ্কার করেছেন। খবর ডেইলি মেইলের।

নতুন এক নকশায় দেখা যায়, প্রাচীন পিরামিড নির্মাণে মিশরীয়রা ব্লক উপরে তোলার জন্য র‌্যাম্প (ধাপবিহীন সিঁড়ি) ও কাঠের তক্তা ব্যবহার করেছেন।

নকশায় দেখানো হয়, মিশরীয়রা পিরামিড নির্মাণের জন্য কিভাবে কয়েক টন ওজনের ব্লক স্লেজের মাধ্যমে কয়েক শ’ ফুট ওপরে তুলতেন।

বিজ্ঞানিরা বলেন, একটি প্রাচীণ প্রত্নতত্ব নিদর্শন থেকে ধারণা করা যায়, প্রাচীন মিশরীয়রা ব্লক উপরে তোলার জন্য এক ধরনের জটিল পদ্ধতি অনুসরণ করতেন। এক্ষেত্রে তারা একটি ধাপবিহীন সিঁড়ি (র‌্যাম্প) এবং এর দুই পাশে দুটি ধাপযুক্ত সিঁড়ি ব্যবহার করতেন। র‌্যাম্পের ভেতরপ্রান্তে উভয় পাশে দেড় ফুট পর পর কাঠের খুঁটি বসাতেন।

ব্লকের নিচে কাঠের তক্তা ব্যবহার করা হত যা চাকার কাজ করতো। এরপর ব্লক রশি দিয়ে পেচিয়ে কাঠের খুঁটির সঙ্গে পেচ দিয়ে ওপরে ও নিচে থেকে টানা হত।

র‌্যাম্পের দুই পাশে ধাপযুক্ত সিঁড়িতে চারজন করে মোট আটজন এবং নিচেও চারজন করে আটজন কর্মী রশি ধরে টানতেন। যারা নিচে ছিলেন তারা নিচের দিকে আর যারা উপরে ছিলেন তারা উপরের দিকে টানতেন।

এভাবে টেনে কাঠের খুঁটির উপরের ধাপে গেলে পেছনে কিছু দিয়ে ঠেকা দেয়া হত। তারপর রশি আবার ওপরের ধাপের খুঁটির সঙ্গে পেচিয়ে আবারও টেনে উপরে তোলা হতো। এভাবে ধীরে ধীরে উপরে তোলা হত পিরামিডের ব্লকগুলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *