ব্যারিস্টার মইনুলের জামিন

বৈচিত্র ডেস্ক : মানহানির দুই মামলায় জামিন পেয়েছেন সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। রংপুর ও জামালপুরে দায়ের হওয়া ওই দুই মামলার কার্যক্রম স্থগিত করে নথি তলব করেছেন আদালত।

বুধবার বিচারপতি মো. রেজাউল হক ও বিচারপতি জাফর আহমেদের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

মামলা দুটি বাতিল চেয়ে করা আবেদনের শুনানি করেন সুপ্রিমকোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন। তার সঙ্গে ছিলেন অ্যাডভোকেট মো. মাসুদ রানা। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল খুরশীদ আলম।

এর আগে ৮ নভেম্বর মানহানির এ দুই মামলা বাতিল চেয়ে মইনুল হোসেনের পক্ষে হাইকোর্টে আবেদন করা হয়।

গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনে একটি টকশোতে নারী সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির করা এক প্রশ্নের জবাবে রেগে যান ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন। এ সময় ব্যারিস্টার মইনুলের করা এক মন্তব্যে তোলপাড় সৃষ্টি হয়।

এ বক্তব্য প্রত্যাহার করে মইনুল হোসেনকে প্রকাশ্যে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়ে বক্তৃতা-বিবৃতি দেয় বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠন।

এর পর রংপুর ও জামালপুরসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে তার বিরুদ্ধে মানহানি ও ডিজিটাল আইনে মামলা হয়।

রংপুরে করা মানহানির মামলায় ২২ অক্টোবর রাত পৌনে ১০টার দিকে রাজধানীর একটি বাসা থেকে মইনুল হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়।

পরে তাকে আদালতে নিয়ে জামিন আবেদন জানালে তা নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বিচারক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *