কলা গাছ থেকে ন্যাপকিন

বৈচিত্র ডেস্ক :  ফেলে দেওয়া জিনিসকে কীভাবে কম খরচে অতি প্রয়োজনীয় জিনিসে রূপান্তর করা যায়, তা দেখিয়েই গোটা ভারতকে তাক লাগিয়ে দিল এক স্কুলপড়ুয়া। কলা গাছ থেকে স্যানিটারি ন্যাপকিন তৈরি করার পদ্ধতি দেখিয়ে তাক লাগিয়ে দিল ভারতের পাঞ্জাবের পাঁশকুড়ার নবম শ্রেণির ছাত্র শ্যামসুন্দর মাইতি।

এই ঘটনার পর থেকেই শ্যামসুন্দরকে ‘প্যাড-বয়’ নামে ডাকা শুরু হয়েছে। পূর্ব মেদিনীপুরের পাঁশকুড়ার শ্যামসুন্দর পাটনা হাইস্কুলের ছাত্র। স্যানিটারি ন্যাপকিন তৈরি প্রসঙ্গে সে জানায়, “ফেলে দেওয়া কলা পাতা ভাল করে ধুয়ে সেগুলি হাতুড়ি দিয়ে থেঁতলাতে হবে। নিংড়ে পানি বের করে তারপর ফুটন্ত পানির উপর রাখতে হবে। পানির ভাপ দেওয়ার পর ফের সেটিকে নিংড়ে আট থেকে দশ ঘন্টা রোদে শুকিয়ে পাতলা পাতলা করে ছিঁড়তে হবে। এরপর স্টেরিলাইজ করা কাঁচি দিয়ে মাপ মতো কেটে ফেললেই অর্ধেক কাজ শেষ। এরপরের কাজও খুবই সহজ। পরিষ্কার কাপড়ে ভরে সেলাই করলেই প্যাড তৈরি।”

শ্যামসুন্দরের কথায়, কলা গাছের বাই প্রোডাক্টে তৈরি এই প্যাড নামী কোম্পানির প্যাডের চেয়ে বেশি কার্যকর। তার দাবি, বাজার চলতি প্যাডের থেকে কলা গাছের তৈরি প্যাডের সহন ক্ষমতা অনেক বেশি, খরচও কম। প্রতি প্যাডের খরচ এক থেকে দু টাকা।

অনেকের মনেই কৌতুহল, এত খুদে পড়ুয়ার এমন পরিণত ভাবনা এল কীভাবে? শ্যামসুন্দর জানায়, এই ভাবনা আসলে তার এক স্কুল শিক্ষকের। তার অনুপ্রেরণাতেই এটিকে বাস্তব রূপ দিয়েছে সে। এই কাজে তার এক সহপাঠীও সাহায্য করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *