সুনামগঞ্জে কিশোরী অপহরণের দায়ে দুই যুবকের ১৪ বছরের কারাদণ্ড

বৈচিত্র ডেস্ক :   কিশোরীকে অপহরণ মামলায় দুই যুবককে ১৪ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন সুনামগঞ্জ জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালত।

মঙ্গলবার সুনামগঞ্জ জেলা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আদালতের বিজ্ঞ বিচারক মো. জাকির হোসেন তাদের এ সাজা দেন।

সাজাপ্রাপ্তরা হলেন- জেলার ধর্মপাশা উপজেলার চকিয়াচাপুর গ্রামের ইসলাম উদ্দিনের ছেলে আপন মিয়া (২৮) এবং একই গ্রামের বাদুর আলীর ছেলে মাসুদ মিয়া (৪০)। সাজাপ্রাপ্তদের একই সঙ্গে ২০ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড করা হয়েছে।

অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় রায়ে আদালত মামলা থেকে বেকসুর খালাস দিয়েছেন একই গ্রামের আবদুস সাত্তারের ছেলে উজ্জ্বল মিয়া ও লেদন মিয়ার ছেলে মুসলিম মিয়াকে।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৬ সালের ১৬ মার্চ ধর্মপাশার চকিয়াচাপুর গ্রামের আপন মিয়া তার সহযোগীদের নিয়ে একই গ্রামের ১৪ বছর বয়সী এক কিশোরীকে জোর করে বিয়ে করতে অপহরণ করে।

ঘটনার ১১ দিন পর ২৭ মার্চ ওই কিশোরী নিজে বাদী হয়ে আপন মিয়াসহ চারজনকে আসামি করে ধর্মপাশা থানায় মামলা করে।

পুলিশ আপন মিয়া ও মাসুদ মিয়াকে অভিযুক্ত করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে। আদালত দীর্ঘ শুনানি শেষে ওই রায় প্রদান করেন।

রায় প্রদানকালে আসামি আপন মিয়া আদালতে উপস্থিত ছিলেন। সাজাপ্রাপ্ত মাসুদ মিয়া জামিনে থাকায় রায় প্রদানকালে তিনি আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। মামলা থেকে বেকসুর খালাস পাওয়া দুই আসামি জামিনে রয়েছেন।

মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী ছিলেন পিপি (নারী ও শিশু) অ্যাডভোকেট নান্টু রায় ও আসামিপক্ষের আইনজীবী ছিলেন অ্যাডভোকেট বোরহান উদ্দিন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *