মোদির অনুরোধ ভোটে

বৈচিত্র ডেস্ক: ভারতের রাজনৈতিক দলগুলোর সরকার গঠনের জন্য লোকসভা ভোটের প্রক্রিয়া শুরু হবে ১১ এপ্রিল। ৭ ধাপের ভোটের পরই ২৩ মে ৫৪৩ আসনের ভোটের ফল প্রকাশ হবে। এরই মধ্য দলগুলো নিজেদের প্রার্থী তালিকা প্রকাশ শুরু করেছে। সাজাচ্ছে ভোটের মাঠের কৌশল। এবারে নতুন ভোটার ৮ কোটি। কীভাবে এই নতুনদের বুথে এনে নিজেদের মার্কায় ভোট নেওয়া যায়, তার প্রক্রিয়াও ভাবছে দলগুলো। আর দেশটির বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ভোটারদের বুথে আনতে অভিনব এক কাজ করে বসেছেন। ভোটকে সফল করতে খেলোয়াড়, অভিনেতা, শিল্পীসহ তারকাদের কাছে টুইটে এক আরজি জানিয়েছেন।

নরেন্দ্র মোদি চান, দেশে সঠিক প্রতিনিধি বেছে নিতে সবাই যেন বুথমুখী হোন। যত বেশি মানুষ ভোটকেন্দ্রে গিয়ে ভোট দেবেন, ততই ভালো। ভোটের অর্থ দেশের জনগণের কাছে নিজের মত তুলে ধরা। তাই কেউ যেন নিজের ভোট নষ্ট না করেন। এ জন্যই মোদি দেশের সব তারকার কাছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে আহ্বান জানিয়েছেন, তাঁরা যেন সবার কাছে কেন্দ্রে ভোট দিতে যাওয়ার আহ্বান জানান। উদ্বুদ্ধ করেন নিজেদের মত জানাতে। খেলার জগতের মানুষদের পাশাপাশি বিনোদন দুনিয়া, রাজনীতি, শিল্প-সাহিত্যর জগতের মানুষদের বার্তা দিয়েছেন মোদি। তারকা সাইনা নেহওয়াল থেকে শচীন টেন্ডুলকার, গীতা ফোগাট থেকে নীরাজ চোপড়া, অমিতাভ বচ্চন থেকে মহেন্দ্র সিং ধোনি, শাহরুখ খান থেকে বিরাট কোহলি, করণ জোহর থেকে দীপিকা পাড়ুকোন,আলিয়া ভাট থেকে এ আর রাহমান, সব সেলিব্রেটিকে তিনি টুইটে আহ্বান জানিয়েছেন। টুইট করে বার্তা দিয়েছেন মোদি। সবাই মিলে মানুষকে ভোট দিতে আগ্রহী করে তোলা সম্ভব বলে মনে করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। তিনি চান, তাদের দেশের মানুষ যেন সঠিক প্রতিনিধিকে বেছে নিতে বুথমুখী হোন।

নরেন্দ্র মোদি টুইটে তারকাদের কাছে আহ্বান জানান, দেশের মুখ উজ্জ্বল করা তারকাদের প্রচুর ভক্ত-অনুরাগী আছেন। তাঁরা যদি তাঁদের আহ্বান জানান, তবে এর প্রভাব পড়বে চোখে পড়ার মতো।

মোদির টুইটের পর নির্মাতা করণ জোহর টুইট করে বলেছেন, এটা হলো গণতন্ত্রের প্রতি ভালোবাসা।

নরেন্দ্র মোদির টুইটের জবাবে অভিনেতা অক্ষয় কুমার তাঁর অন্যতম সফল ছবি ‘টয়লেট: এক প্রেম কথা’কে ট্যাগ করে দিয়েছেন। তিনি বলেছেন, ‘ভালো বলেছেন মোদি জি, ভোটে সব মানুষের অংশগ্রহণই গণতন্ত্রের সাফল্য। নির্বাচন হলো ভোটার ও জাতির মধ্যকার সুপার হিট প্রেম।’

এ আর রাহমান টুইটে বলেছেন, ‘ধন্যবাদ, আমরা অবশ্যই করব।’

এখন নির্বাচনী প্রচারের সবচেয়ে বড় মাধ্যম হয়ে দাঁড়িয়েছে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম। সেটিকেই কাজে লাগাতে চাইলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। কারণ পুরো ভারতে ১০ লাখেরও বেশি বুথে ভোট গ্রহণ করা হবে। এটা বিশ্বে রেকর্ডও। ভারতের আসন্ন লোকসভায় ১১ লাখ ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিন ব্যবহৃত হবে। নতুন ভোটারের সংখ্যা প্রায় সাড়ে আট কোটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *