রাফি হত্যার দায় সরকার এড়াতে পারবে না : মির্জা ফখরুল

বৈচিত্র ডেস্ক:  বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফি হত্যার দায় সরকার এড়াতে পারবে না। এরকম জঘন্য হত্যাকাণ্ডের পর যেভাবে দ্রুততার সঙ্গে সরকারের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পদক্ষেপ নেয়ার কথা ছিল রাফির ক্ষেত্রে তা হয়নি। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।

ঢাকার উদ্দেশে রওনা দেয়ার আগে শনিবার বিকালে ঠাকুরগাঁও শহরে নিজ বাসবভনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত না রাফির হত্যাকারীরা বিচারের মুখোমুখি হচ্ছে, শাস্তি পাচ্ছে। ততক্ষণ পর্যন্ত এর দায় সরকারসহ গোটা জাতিকে বহন করতে হবে। এ সময় রাফি হত্যাকারীদের দ্রুত বিচার দাবি করেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, শুধু বিএনপি নয়, পুরো জাতি সংকটে আছে। এ বেআইনি ও দখলদার সরকারের কারণে মানুষের মত প্রকাশের স্বাধীনতা ধ্বংস হয়ে গেছে। বাংলাদেশে তো এখন কোনো রাজনীতি নেই, রাজনীতি তো একটা দলের কাছে চলে গেছে। সেই দলের হাতেই এখন আইনের শাসন ব্যবস্থা, পুলিশ বাহিনী নিয়ন্ত্রণ হয়। সাংবাদিকরাও এখন সত্য প্রকাশ করতে পারেন না। মানুষের বাকস্বাধীনতা নেই এখন, তাই অন্যায়কারীরা অন্যায় করতে ভয় পায় না এখন।

খালেদা জিয়ার মুক্তির ব্যাপারে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে মির্জা ফখরুল বলেন, সরকারের সঙ্গে এ ব্যাপারে এখনও পর্যন্ত কোনো কথা হয়নি। এ নিয়ে সরকার মিথ্যা ও বিভ্রান্তিমূলক তথ্য দিয়ে জাতিকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সহ-সভাপতি আবু তাহের দুলাল, সাধারণ সম্পাদক ও পৌর মেয়র মির্জা ফয়সল আমিন, জেলা বিএনপির দফতর সম্পাদক মামুন-উর-রশিদ প্রমুখ।

রাফি হত্যা প্রমাণ করে আইনশৃঙ্খলার চরম অবনতি হয়েছে -মওদুদ : শনিবার বিকালে ফেনীর সোনাগাজীতে মাদ্রাসাছাত্রী রাফির পরিবারকে সমবেদনা জানাতে যায় বিএনপির একটি প্রতিনিধি দল। প্রতিনিধি দলের পক্ষ থেকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, রাফি হত্যাকাণ্ডে প্রমাণিত হয়েছে দেশে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির চরম অবনতি হয়েছে। পুলিশ শুধু বিরোধী দল দমনে ব্যস্ত। দেশের আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে পুলিশের কোনো ভূমিকা থাকে না।

তিনি বলেন, আমি রাজনৈতিক কারণে এ বক্তব্য দিচ্ছি না। রাফি একজন কিশোরী। এ কিশোরীকে যে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে তা অত্যন্ত ন্যক্কারজনক ও হৃদয়বিদারক ঘটনা। একজন শিক্ষকের মেয়ে আরেক শিক্ষকের কাছে পরম আদরের সন্তানের মতো হওয়ার কথা ছিল। এ নৃশংস ঘটনায় আমরা নির্বাক ও হতবাক। এ ঘটনার বিচার দ্রুত বিচার আইনে হওয়া উচিত।

পরিবারের সঙ্গে সাক্ষাৎ শেষে বিএনপির প্রতিনিধি দল রাফির কবর জিয়ারত করে। প্রতিনিধি দলে মওদুদ আহমদ ছাড়াও ছিলেন- বিএনপির কেন্দ্রীয় ভাইস চেয়ারম্যান বরকতউল্লাহ বুলু, মোহাম্মদ শাহাজান, আবদুল আউয়াল মিন্টু, যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন, চট্টগ্রাম বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মাহবুবুর রহমান শামীম, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক জালাল উদ্দিন মজুমদার, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবদুল লতিফ জনি, সাবেক মহিলা এমপি রেহেনা আক্তার রানু, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুণ রায় চৌধুরী, জেলা বিএনপির সভাপতি আবু তাহের, সাধারণ সম্পাদক জিয়া উদ্দিন প্রমুখ।

রাফির খুনিদের বাঁচাতে তৎপর একটি গ্রুপ -দাবি রিজভীর : বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী দাবি করেছেন, সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফির খুনিদের বাঁচাতে একটি গ্রুপ মাঠে তৎপর রয়েছে। এ ঘটনায় জড়িত সবাই ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মী। তাদের পক্ষে সাফাই গাইতে শুরু করেছে ওই গ্রুপটি। এ হত্যা মামলার সুষ্ঠু তদন্ত হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় প্রকাশ করে তিনি বলেন, কতিপয় খুনিকে ধরা হলেও আসল খুনিদের ধরা হবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ জনমনে। রাফি হত্যা মামলার তদন্ত তনু ও সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনির হত্যার মতোই কোনো অন্ধকারে অতলে তলিয়ে যাবে কিনা সে বিষয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি একথা বলেন।

রিজভী বলেন, শুধু আমরা নই এ আশঙ্কা করেছেন স্বয়ং মহামান্য হাইকোর্টও। খুনিদের কয়েকজনকে গ্রেফতার করলেও স্থানীয় ছাত্রলীগ সভাপতি শামীমসহ জড়িত অনেকেই এখনও ধরা হয়নি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- দলের ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, কেন্দ্রীয় নেতা সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স, আবদুস সালাম আজাদ, মুনির হোসেন, আবদুল আউয়াল খান, কাজী আবুল বাশার প্রমুখ।

এখন মানবাধিকার ও মহিলা সংগঠনগুলোকে সোচ্চার হতে দেখি না -নজরুল : মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত প্রসঙ্গে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান বলেছেন, এখন তো মানবাধিকার ও মহিলা সংগঠনগুলোকে সোচ্চার হতে দেখি না। আজকে আমরা শুনি নুসরাতকে যারা লাঞ্ছিত করেছে তাদের মধ্যে ক্ষমতাসীন দলের লোকেরা আছে। তাদের এক নেতাকে বহিষ্কার করা হয়েছে। তাদের গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের সঙ্গে সখ্য ক্ষমতাসীন দলের। আমরা দাবি করব, নুসরাতকে লাঞ্ছনাকারী সে যেই হোক না কেন, তাকে বিচারের আওতায় আনতে হবে। উপযুক্ত শাস্তি দিতে হবে।

জাতীয় প্রেস ক্লাবে শনিবার বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী কর্মজীবী দল আয়োজিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

সালাহউদ্দীন খানের সভাপতিত্বে ও মো. আলতাফ হোসেন সরদারের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য দেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, প্রশিক্ষণ বিষয়ক সম্পাদক এবিএম মোশাররফ হোসেন, কৃষক দলের আহ্বায়ক কমিটির সদস্য মাইনুল ইসলাম প্রমুখ।

রাজধানীতে রিজভীর নেতৃত্বে বিক্ষোভ : দলীয় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নিঃশর্ত মুক্তি ও সুচিকিৎসার দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল করেছেন বিএনপি নেতাকর্মীরা। শনিবার দুপুরে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে এ বিক্ষোভ মিছিল হয়। মিছিলটি নয়াপল্টনের দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে শুরু হয়ে নাইটিঙ্গেল মোড় ঘুরে আবারও কার্যালয়ের সামনে এসে শেষ হয়। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর নেতৃত্বে মিছিলে সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আবদুস সালাম আজাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশারসহ কয়েকশ’ নেতাকর্মী অংশ নেন। এ সময় তারা খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসা ও নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে নানা স্লোগান দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *