গোলাপ চাষে ব্যাপক সাফল্য

বৈচিত্র ডেস্ক:   কুমিল্লায় বাণিজ্যিকভাবে গোলাপ ফুল চাষ করে ব্যাপক সাফল্য পাওয়া যাচ্ছে। এ জেলার উৎপাদিত গোলাপের আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। তাই বাজারে এর চাহিদাও বেশি। গেল কয়েক বছর ধরে কুমিল্লা জেলার বিভিন্ন স্থানে ফুল চাষ করে কৃষকরা সাফল্য পাচ্ছিল না। তাই গেল কয়েক বছর জেলার হোমনা, মুরাদনগর, তিতাস, সদর উপজেলাসহ বেশ কয়েকটি উপজেলায় গোলাপ চাষ শুরু হলেও সাফল্য আসেনি। তাই মাঝপথে বন্ধ হয়ে গেছে এই চাষ।

তবে সম্প্রতি এই ফুল চাষের উদ্যোগ নিয়ে ব্যাপক সাফল্য পাচ্ছেন কুমিল্লা বরুড়া উপজেলার কৃষক চারু মিয়া। মাটি উর্বর হওয়ায় ফলনও ভালো হচ্ছে। আশা জাগাচ্ছে আশাপাশের কৃষকদের।

বেশ কয়েক বছর ধরে তিনটি জমির ৩০ শতাংশ জমিতে গোলাপ চাষে লাভবান হচ্ছেন চারু মিয়া। নানা জাতের গোলাপ ফুটছে তার জমিতে। চারু মিয়ার এই গোলাপ কুমিল্লা জেলার চাহিদা মিটিয়ে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রি হচ্ছে। শুরুতে শখের বশে হলেও লাভ হওয়ায় এখন তা পেশায় পরিণত হয়েছে।

চারু মিয়ার গোলাপ চাষ দেখে বিস্মিত স্থানীয় কৃষকরা। তারা তার সাফল্যের গল্প বলে বেড়ান এলাকা জুড়ে। তার ব্যবসায় ব্যাপক সাফল্যে গর্বিত তারাও।

চারু মিয়া বলেন, গোলাপ চাষ লাভজনক ও চাহিদা থাকার কারণে এ চাষের সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। তবে এতে কৃষি অধিদপ্তরের সহযোগিতার পাশাপাশি আর্থিক সহায়তারও প্রয়োজন। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দপ্তর আরো আন্তরিক হবেন এমনটাই প্রত্যাশা তার।

কুমিল্লা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক দিলীপ কুমার অধিকারী জানান, কুমিল্লা জেলার জমি উর্বর হওয়ায় এখানে সব ধরনের ফসল ফলে। তবে ফুলের খেতে এই প্রথম সাফল্য পাওয়া গেছে। আর তাই কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর থেকে আরও সহায়তা দেয়ার কথা জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *