ডিম যখন বাদামি, নীল ও গোলাপী রঙের!

বৈচিত্র ডেস্ক :  দেখে যে কেউ ধরে নেবে কোনো এক খেয়ালী মনের মানুষ সাদা রঙের ডিমে রঙ করে এমন বাহারি রূপ দিয়েছেন।

তবে কোনো রঙ করা হয়নি; মুরগির পেট থেকেই বেরিয়ে এসেছে এমন সব বর্ণিল ডিম! যখন তাকে এমন তথ্য দেয়া হবে তিনি স্বচোখে দেখা ছাড়া হয়তো বিশ্বাস নাও করতে পারেন।

কিন্তু বাস্তবে এমনই রঙিন ডিম পাড়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিশেষ প্রজাতির একটি মুরগি। এদের নাম দেয়া হয়েছে ‘ইস্টার এগার্স’।

এরা একই সঙ্গে নানা রঙের ডিম পাড়ে। যে কারণে এমন নামকরণ হয়েছে তাদের। এমন অভিনব গুণের জন্যই যুক্তরাষ্ট্রসহ আমেরিকার বিভিন্ন দেশে এই মুরগি বেশ বিখ্যাত ও দামি।

এরা সাদা, বাদামি, হাল্কা নীল, হাল্কা গোলাপী বা ফিকে সবুজ রঙের ডিম পাড়ে। এর জন্য কোনো কৃত্রিমতার আশ্রয় নিতে হয় না এদের। অর্থাৎ নানা রঙের ডিম পেতে কোনো রকম ওষুধ খাওয়ানোর প্রয়োজন হয় না এদের।

জানা গেছে, ইস্টার এগার্স ছাড়াও আরও বেশ কয়েকটি প্রজাতির মুরগি এমন রঙিন ডিম পাড়ার অদ্ভুত ক্ষমতা রয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে চিলির শংকর প্রজাতির অ্যারোকানাস মুরগি, ব্রিটেনের ক্রিম লেগবার মুরগি (এটিও শঙ্কর প্রজাতির) বা ফ্রান্সের মারানস প্রজাতির মুরগি। অ্যারোকানাস প্রজাতির মুরগির ডিমের রঙ হাল্কা নীল বা আকাশি।

প্লাইমাউথ রক, লেগহর্ন, ক্যাম্বার্স প্রজাতির মুরগির শংকরায়ণে সৃষ্টি হয় ক্রিম লেগবার প্রজাতির মুরগি। হালকা নীল বা ফিকে সবুজ রঙের ডিম পাড়ে এই মুরগি।

ফ্রান্সের মারানস প্রজাতির মুরগির ডিমের রং গাঢ় বাদামি বা লালচে বাদামি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *