কোহলিকে নিয়ে বিস্ফোরক দাবি ইরফানের

 ক্রীড়া ডেস্ক:  গৌতম গম্ভীরের ক্যারিয়ার ধ্বংস করেন মোহাম্মদ ইরফান। শেষ পর্যন্ত ভারতীয় ওপেনারকে অবসর নিতেই বাধ্য করেন তিনি। ঠিক এমনই বিস্ফোরক দাবি করেছেন পাকিস্তানের এ পেসার।

পাকিস্তানিদের সঙ্গে গম্ভীরের যুদ্ধ লেগেই আছে। কখনও মিঁয়াদাদ, কখনও আবার শহীদ আফ্রিদিকে টুইটারে খোঁচা দেন তিনি। পাকিস্তানে সফররত শ্রীলংকাকে নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তা দেয়া নিয়েও কটাক্ষ করতে ছাড়েননি ভারতের সাবেক ওরেপনার।

এবার গম্ভীরকে খোঁচা দিলেন ইরফান। পাকিস্তানের সামা টিভিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ইরফান বলেন, ২০১২ সালে ভারত সফরে যাই আমরা। ওই সফরে ওয়ানডে সিরিজে গম্ভীরকে চারবার আউট করি আমি। কখনও আমাকে স্বাচ্ছন্দে খেলতে পারত না সে। এর জেরেই তার ক্রিকেট ক্যারিয়ার ধ্বংস হয়ে যায়।

শুধু গম্ভীর নন, বিরাট কোহলিও তাকে খেলতে সমস্যায় পড়তেন বলে দাবি করেছে ৭ ফুট ১ ইঞ্চি উচ্চতার পেসার। পাক স্পিডস্টার বলেন, বিরাট আমাকে জানায়, তার ধারণা ছিল; আমি ১৩০-১৩৫ কিলোমিটারের এর আশপাশে গতি তুলি। তবে নিজের পেস বাড়ায়। ১৪৫ কিলোমিটার গতিতে আমাকে খেলতে সমস্যায় পড়ে ও। একবার আমার একটা গুড লেংথ বল পুল করতে গিয়ে মিস করে এবং আউট হয়ে যায়।

ওই ম্যাচে বিরাটকে পুল মারতে নিষেধ করেন খোদ যুবরাজ সিং। ইরফান জানান, ক্রিজের অন্যপ্রান্তে ছিল যুবি। সে বিরাটকে পুল করার পরিবর্তে কাট করতে বলে। তবে তার কথা না শুনে পুল করতে গিয়ে উইকেটের পেছনে ক্যাচ তুলে দেয় ভারতীয় অধিনায়ক।

২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ওয়ানডে ম্যাচ দিয়ে পাকিস্তানের জার্সিতে অভিষেক হয় ইরফানের। ক্যারিয়ারের শুরুতে উচ্চতা আর গতি দিয়ে বিশ্বের বাঘা বাঘা ব্যাটসম্যানদের বুকে কাঁপন ধরান তিনি। তবে সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে তার বল পড়ে ফেলেন ব্যাটসম্যানরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *