গুটিকয়েকের অপকর্মের দায় সংগঠনের নয়: ওবায়দুল কাদের

বৈচিত্র ডেস্ক : আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, দলে নানা সময়ে আগাছা-পরগাছা অনেকেই ঢুকে গেছে। ভালো আছে, মন্দও আছে।

এক্ষেত্রে দেখার বিষয়- আমাদের দলের ভূমিকা কী। কোনো প্রকার আশ্রয়-প্রশ্রয় দেয়া হচ্ছে কিনা। তিনি বলেন, আমাদের সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ নিয়ে কঠোর অবস্থানে রয়েছেন। গুটিকয়েকের অপকর্মের দায় পুরো সংগঠনের নয়।

বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকাণ্ডের দায় আওয়ামী লীগ নেবে কিনা- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের এসব কথা বলেন। মঙ্গলবার সকালে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে আবরার হত্যাকাণ্ডসহ সমসাময়িক বিষয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ছাত্রলীগ অনেক ভালো কাজও করেছে। চাঁদের গায়েও খুঁত আছে। তবে কিছু লোকের কারণে আওয়ামী লীগের বা ছাত্রলীগের অর্জন ম্লান হয়ে যেতে পারে না। তাদের অপরাধের জন্য পুরো সংগঠন দায়ী হবে না। তিনি বলেন, দলীয় পরিচয়ে কেউ অপরাধ করলে কোনো ছাড় দেয়া হবে না। অপকর্ম করে কেউ পার পেয়ে যায় না, পাবে না।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির শাসনামলে তাদের দলের একজন অপরাধীর বিরুদ্ধেও সাংগঠনিক ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, এমন নজির নেই।

বরং তাদের শাসনামলে হাওয়া ভবন সৃষ্টি করে দেশকে দুর্নীতির স্বর্গরাজ্যে পরিণত করা হয়েছিল। কিন্তু আওয়ামী লীগ সব অপকর্মের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক এবং প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়। আওয়ামী লীগের মন্ত্রী, এমপি এবং দলের নেতাদের বিরুদ্ধেও অপরাধের দায়ে সাংগঠনিক ও প্রশাসনিক ব্যবস্থা নেয়ার নজির রয়েছে।

অপর এক প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপির কথাবার্তার কোনো ঠিক-ঠিকানা নেই। তারা নেতিবাচক রাজনীতি ও কথাবার্তা দিয়ে টিকে থাকার চেষ্টা করছে। বিএনপি তো এও বলে, তারা জনপ্রিয় দল। তাহলে রংপুরে তারা এত কম ভোট পেল কেন?

আবরার হত্যায় জড়িতদের গ্রেফতারে সরকারের কঠোর অবস্থানের কথা জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, বুয়েট ছাত্র আবরার হত্যাকাণ্ড খুবই দুঃখজনক। কেউ ভিন্নমতাবলম্বী হলেও তাকে মেরে ফেলা যায় না। প্রশাসন কঠোর ব্যবস্থা নিচ্ছে। এ ঘটনায় ৫ মিনিটের মধ্যে ৬ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ১১ জনকে বহিষ্কার করা হয়েছে। জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেয়া হবে। অপরাধী কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।

বুয়েটে ছাত্র হত্যার প্রতিবাদে বিভিন্ন জায়গায় বিক্ষোভের বিষয়ে এক প্রশ্নে কাদের বলেন, কোথাও আন্দোলনের ছোট ঢেউও নেই। ছাত্রলীগের গুটিকয়েক অপরাধ করলে বা যুবলীগের গুটিকয়েক অপরাধ করলে সেটার জন্য গোটা সংগঠন দায়ী নয়।

আবরার হত্যাকাণ্ডের পর প্রায় দু’দিন পরও বুয়েট ভিসির ক্যাম্পাসে না যাওয়া প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আমি শুনেছি তিনি অসুস্থতার কারণে যেতে পারেননি, সুস্থ হলেই যাবেন।

বিচারহীনতার কারণে বারবার ছাত্র হত্যার ঘটনা হচ্ছে কিনা- জানতে চাইলে ওবায়দুল কাদের বলেন, বিচারহীনতা নেই। প্রতিটি ঘটনার বিচার হয়েছে।

জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধ করা হবে কিনা- জানতে চাইলে তিনি বলেন, নির্বাচন কমিশনে দলের তালিকায় জামায়াত নেই। জামায়াত-শিবির নিষিদ্ধের বিষয়টি আদালতে বিচারাধীন। এটা আদালতের বিষয়।

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী, যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক হারুন-অর-রশিদ, উপদফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপপ্রচার সম্পাদক আমিনুল ইসলাম আমিন সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *