ইউরোপের বৃহত্তম জাদুঘরে ‘ভয়াবহ’ চুরি

বৈচিত্র ডেস্ক : ইউরোপের বৃহত্তম জাদুঘর গ্রিন ভল্ট থেকে শত কোটি ইউরো মূল্যের অলংকার ও ধনদৌলত চুরি হয়েছে বলে জানিয়েছে জার্মান পুলিশ এ তথ্য জানিয়েছে। এ ব্যাপারে সোমবার জানানো হয়, জার্মানির অনন্য সব নকশার অলংকার সংগ্রহশালা গ্রিন ভল্ট থেকে ১৮ শতকের অমূল্য রত্ন চুরির ঘটনা ঘটেছে।

এএফপি বলছে, ড্রেসডেন শহরের রয়্যাল প্যালেসে অবস্থিত গ্রিন ভল্ট জাদুঘর থেকে কয়েকশ’ গুরুত্বপূর্ণ শিল্পকর্ম চুরি করা হয়েছে। এ ঘটনা দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধপরবর্তী সময়ে সবচেয়ে বড় চুরি বলে আখ্যায়িত করেছে জার্মানির ট্যাবলয়েড বিল্ড ডেইলি।

সোমবার ভোরের দিকে চোররা জাদুঘরেরে পাশের বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্রে আগুন লাগায়। এতে জাদুঘরের বিদ্যুৎ সরবরাহ ও নিরাপত্তা সতর্কীকরণ ব্যবস্থা বিকল হয়ে পড়ে। পরে ভবনের জানালার সুরক্ষিত লোহার রড ভেঙে ভেতরে ঢোকে দুই চোর। তারা ১০টির মধ্যে তিন সেট ডায়মন্ডের অলংকার নিয়ে পালিয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন ড্রেসডেন শিল্প সংগ্রহশালার পরিচালক ম্যারিওন অ্যাকারম্যান।

চুরি হওয়া অলংকারের মধ্যে আঠারো শতকের স্যাক্সোনি যুগের রোমান শাসক আগাস্টাস দ্য স্ট্রংয়ের সংগৃহীত নিখুঁত কারুকাজের ডায়মন্ডের অলংকারও রয়েছে।

চুরি হওয়া সম্পদগুলোর নির্দিষ্ট মূল্য নির্ধারণ করতে পারেনি আমরা। কারণ এগুলো অমূল্য রত্ন।’ ভিডিও ফুটেজে দেখা গেছে, জাদুঘরের ভেতরে ঢুকে দুই চোর কুড়াল দিয়ে শোকেজের কাচ ভেঙে অলংকার বের করে। পরে একজন অডি এ৬ মডেলের একটি গাড়িতে করে পালিয়ে যায়। অপরজন দৌড়ে পালায়।

পুলিশ জানায়, চোরের ব্যবহৃত গাড়িটি পরে আগুন লাগানো অবস্থায় পাওয়া গেছে। সন্দেহভাজনকে ধরতে গাড়িটি পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হচ্ছে। বিল্ড ডেইলি বলছে, দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ-পরবর্তী সময়ে সবচেয়ে বড় চুরি এটি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *