প্রথম স্ত্রী অমৃতাকে ভুলতে পারেননি সাইফ

  বিনোদন ডেস্ক : অমৃতা সিং-এর সঙ্গে বিচ্ছেদ পর্ব একেবারেই তাঁর কাছে সুখের ছিল না। ১৩ বছর বিয়ের পর ২ সন্তানের বাবা-মা হওয়ার পর সংসার ভেঙে বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত যে কতটা কঠিন ছিল, তা এবার প্রকাশ্যে আনলেন সাইফ আলি খান।

সম্প্রতি এক সংবাদমাধ্যমের সাক্ষাতকারে হাজির হন সাইফ আলি খান। সেখানে তিনি অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে বিয়ে এবং বিচ্ছেদ নিয়ে মুখ খোলেন। সাইফ বলেন, মাত্র ২০ বছর বয়সে বিয়ে করেছিলেন  তিনি। ওই সময় তাঁর চেয়ে ১১ বছরের বড় ছিলেন অমৃতা। তাঁর প্রথম বিয়ের সিদ্ধান্ত বাড়ি থেকে মেনে নেওয়া না হলেও, অমৃতা ছিলেন অনেক বেশি পরিণত।  প্রথম স্ত্রীর জন্য়ই তিনি সংসার করতে পারেন বলেও জানান সাইফ। কিন্তু সারা এবং ইব্রাহিমের জন্মের পর তাঁদের মধ্যে মনোমালিন্য শুরু হয়। পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাওয়ার পরই তাঁরা বিয়ের সিদ্ধান্ত নেন। শুধু তাই নয়, সারা এবাং ইব্রাহিমের কাছে গিয়ে নিজেদের বিচ্ছেদের খবর সাইফই প্রথম জানিয়েছিলেন বলেও জানান বলিউড অভিনেতা।

তিনি বলেন, অমৃতার সঙ্গে প্রথম বিয়ে ভাঙার সিদ্ধান্ত নিয়ে এখনও খুশি নন তিনি।  শুধু তাই নয়, প্রত্যেক সন্তানই যেমন তাঁদের বাবা-মা দুজনকেই সব সময় কাছে পেতে চায়, সারা এবং ইব্রাহিমও সেই তালিকার বাইরে নয়। তাই বাবা-মায়ের বিচ্ছেদের খবরে আর পাঁচজন সাধারণ শিশুর মতোই সারা, ইব্রাহিমও মনের দিক থেকে ভেঙে পড়েছিল বলে জানান সাইফ আলি খান।

প্রসঙ্গত, অমৃতা সিংয়ের সঙ্গে বিচ্ছেদের বেশ কয়েক বছর পর কারিনা কাপুরের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন সাইফ আলি খান। তবে কারিনার সঙ্গে যে সাইফের প্রথম পক্ষের সন্তানদের বেশ ভাল সম্পর্ক, তা বার বার প্রকাশ্যে এনেছেন বেগম সাহেবা। বিশেষ করে সারা আলি খানের সঙ্গে। এমনকী, কেদারনাথের পর নিজের স্টাইলিস্টকে দিয়ে সারাকে নতুন করে সাজিয়ে গুছিয়ে পাপরাতজির সামনে তুলে ধরেন কারিনা কাপুর খান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *