হেয়ার ট্যাটুতে কিম!

বৈচিত্র ডেস্ক : সম্প্রতি সার্বিয়ান হেয়ার-ট্যাটু শিল্পী মারিও হভালা একজন খদ্দেরের মাথায় কিম জং উনের ছবি ট্যাটু করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের শিরোনাম হয়েছেন।আর এ হেয়ার-ট্যাটুর চল পৃথিবীতে শুরু হয়েছে বছর কয়েক আগে। আমাদের কাছে অপরিচিত তো বটেই। আর পুরো পৃথিবীতে এই হেয়ার-ট্যাটু আঁকেন মাত্র কয়েকজন।

এদের মধ্যে সবচেয়ে বিখ্যাত মারিও হভালা। তিনি অবশ্য এই হেয়ার-ট্যাটু আঁকছেন প্রায় আট বছর ধরে। আঁকছেন না বলে অবশ্য কাটছেন বলাই ভালো। কারণ মাথার চুল কেটে কেটেই তো হেয়ার-ট্যাটু ফুটিয়ে তোলা হয়। সার্বিয়ান এই ভদ্রলোক পেশায় নাপিত। নাপিতগিরি করতে করতেই তাঁর মাথায় এই হেয়ার ট্যাটুর ভাবনাটা আসে।সেটিও একদিন হঠাৎ করেই। তিনি তখন কাজ করতেন স্লোভেনিয়ায়। একদিন এক লোক এলো তাঁর কাছে চুল কাটতে। সেই লোকের চাহিদা, তার মাথায় দুটি সরল রেখা বানিয়ে দিতে হবে। কিন্তু মারিও ভাবলেন আরেকটু জটিল নকশা। ফল, লোকটি বাড়ি গেল মাথার পেছনে একটি মাকড়সার নকশা নিয়ে।সেই থেকে মারিওর হেয়ার-ট্যাটু আঁকানোর শুরু। বছর চারেক আগে তিনি তাঁর স্বদেশে ফিরে এসেছেন। এখন কাজ করেন দেশটির দ্বিতীয় বৃহত্তম শহর নোভি সাদের হাউস ডেমিয়েন নামের একটি সেলুনে। সেখানে চুল কাটার পাশাপাশি হেয়ার-ট্যাটুও আঁকেন। এখানে হেয়ার-ট্যাটু এঁকে বেশ কয়েকবার দেশটির জাতীয় পত্রিকাগুলোর শিরোনামও হয়েছেন তিনি। কারণ খদ্দেরদের মাথায় এঁকেছিলেন দেশটির বিখ্যাত সব মানুষের ছবি। বিখ্যাত বিজ্ঞানী নিকোলা টেসলা, টেনিস খেলোয়াড় নোভাক জোকোভিচ, প্রধানমন্ত্রী আলেকজান্ডার ভুচিচের মতো লোকদের। তবে সম্প্রতি তিনি খবর হয়েছেন আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলোতে। কারণ একজনের চাওয়া অনুসারে তাঁর মাথার পেছনে হাস্যোজ্জ্বল কিম জং উনের একটা হেয়ার-ট্যাটু করে দিয়েছিলেন। সেই ট্যাটুর একটা ভিডিও ফেসবুকেও ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়েছিল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *