ব্যক্তিত্বের রহস্য : ঘুমানোর ধরণই বলে দিবে

ব্যক্তিত্বের রহস্য : ঘুমানোর ধরণই বলে দিবে

তবে সম্প্রতি একটি গবেষণায় বলা হয়েছে মানুষের ঘুমানোর ধরণ দেখেও বুঝা যায় সংশ্লিষ্ট ব্যক্তির ব্যক্তিত্ব কেমন! প্রতিটি মানুষ আলাদা হয় তার ব্যক্তিত্বের কারণে। কে কেমন ব্যক্তিত্বের অধিকারি তা জানার অনেক পথ রয়েছে। যার মধ্যে জ্যোতিষশাস্ত্র অন্যতম। ভ্যালি স্লিপ সেন্টারের সভাপতি লরি লিডলি তার গবেষণায় সেই বিষয়ে আলোকপাত করেছেন। চলুন জেনে নেওয়া যাক তিনি কি বলছেন।

যারা চিত হয়ে ঘুমান

ব্যাক স্লিপার বা চিত হয়ে যারা ঘুমান, তারা সাধারণত কম কথা বলে থাকেন এবং একটু আত্মকেন্দ্রিক হন বলেই মনে করেন লরি। তার মতে চিত হয়ে যারা ঘুমান, তারা তাড়াতাড়ি ঘুমাতে পারেন না। এরা বেশিক্ষণ ঘুমাতে পারেন না, দিনে সর্বমোট ৫ ঘণ্টার বেশি ঘুমাতে পারেন না। ঘুমের মধ্যে বিভিন্ন ধরণের স্বপ্নও দেখেন। অনেক সময়ে ভয়ের স্বপ্ন দেখার সম্ভাবনা থাকে। ঘুম থেকে উঠে যাওয়ার পর এমন ব্যাক্তিত্বের মানুষরা একটু আনন্দদায়ক কিছু কাজ করতে পছন্দ করেন।

উপুড় হয়ে যারা ঘুমান

উপুড় হয়ে যারা ঘুমান, তাদের স্বভাবে একটু আত্মকেন্দ্রিক হতে দেখা গিয়েছে। এদের মধ্যে অনেকই রয়েছেন যারা আবার একটু খোলামেলা স্বভাবের হন। তবে বেশির ভাগ মানুষই খুব চঞ্চল মনের হয়ে থাকেন বলে মনে করেন লরি লিডলি। তবে উপুড় হয়ে ঘুমানো মানুষেরা ভালো বন্ধু হতে পারেন। কারণ যে কোনো বিষয়ে ভাগাভাগির ক্ষেত্রে এদের জুড়ি মেলা ভার।

পাশ ফিরে যারা ঘুমান

পাশ ফিরে ঘুমানো মানুষেরা উপরের দুই ধরনের মানুষদের থেকে একেবারে বিপরীত হয়ে থাকেন। স্বভাবের দিক থেকে এরা খুব খোলামেলা হন। অনেক কথা বলতে ভালোবাসেন। রাত জাগাটা এদের স্বভাবসিদ্ধ বলেই মনে করেন লরি লিডলি। টিভি দেখার সময়ে এরা ক্লাসিক কমেডি দেখতে বেশি পছন্দ করেন।

ডান ও বাম পাশ ফিরে যারা ঘুমান

এই পাশ ফিরে ঘুমানোর ক্ষেত্রে দুই ধরনের মানুষ রয়েছেন। লরির মতে কেউ কেউ ডান পাশ ফিরে ঘুমাতে পছন্দ করেন। আবার কেউ বাম পাশ ফিরে ঘুমাতে পছন্দ করেন। এদের মধ্যে যারা বাম পাশ ফিরে ঘুমান তারা উচ্চশিক্ষা ও ধনী ব্যক্তিত্বের অধিকারী। খ্যাতিযুক্ত কাজের সঙ্গে জড়িত থাকতে এরা পছন্দ করেন। অন্যদিকে, যারা ডান পাশ ফিরে ঘুমাতে পছন্দ করেন, তাদের মধ্যে বেশির ভাগ মানুষ চা ও কফি খেতে পছন্দ করেন। কাজের দিকে এরা পরিবহন ও মেনুফ্যাকচারিং শিল্পের সঙ্গে যুক্ত থাকতে পছন্দ করেন।